শুক্রবার রাত ৯:৫৪, ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং
প্রতিবেদন
নেত্র‌কোনা হাও‌রে ভ্রম‌ণে এসে ১৭ হা‌ফেজ-আ‌লে‌মের মৃত্যু গরুর চামড়ার গোশত অনেক সুস্বাদু ও পুষ্টিকর অথৈ জলে ভাসছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিম্নাঞ্চল (ভিডিও) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ফেন্সিডিলসহ আটক ত্রিমু‌খী দু‌র্যো‌গেও জ‌মে উঠে‌ছে ঐ‌তিহ‌্যবাহী না‌জিরপুর কুরবা‌নী হাট ব্রাহ্মণবাড়িয়া হার্ট ফাউন্ডেশনের হার্ট অ্যাটাক! দুর্গাপু‌রে কে‌ন বাড়‌ছে আত্মহত‌্যা, প্র‌তিকার কী? সাংবাদিক সম্মেলনে গোঁজামিল বক্তব্য: ফেঁসে গেলেন ডাঃ সাঈদ শাহেদের আরেক নাম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডাক্তার সাঈদ করোনায় মারা গেলেন যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুল সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন মারা গেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা

কুরবানীর ঈদেও অলস সময় কাটা‌চ্ছে কামার শিল্পীরা

৭৮ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

ঈদুল আজহার বাকী আর মাত্র ১দিন। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে কামার শিল্পীদের লোহার যন্ত্রপাতি তৈরিতে রাতভর ব্যস্ত সময় কাটানোর কথা থাকলেও তারা এখন অলস সময় কাটাচ্ছেন।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে অধিকাংশ মানুষের পশু কোরবানীতে আগ্রহ নেই। তাই ঠাকুরগাঁয়ে কামার শিল্পীদের বেহাল অবস্থা। কোরবানীর গবাদিপশু জবাই করতে এবং

মাংস তৈরীতে দা, কুঠার, ছুড়ি, চাপাতি ও কাটারী বেশি প্রয়োজন। এ যন্ত্রপাতি তৈরিতে ঠাকুরগাঁয়ের বাসস্ট্যান্ড ও জগন্নাথপুর ইউনিয়নের বড় খোচাবাড়ি হাট বাজারের কামার পাড়ায় কামার শিল্পীরা রাতভর টুংটং শব্দে ব্যস্ত থাকার কথা ছিল।

কিন্তু প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারনে কাজ কম তেমন না থাকায় এখন তারা অলস সময় কাটাচ্ছেন। কাজ নেই বললেই চলে বলে জানান কামার শিল্পী দেবনাথ কর্মকার। বাস স্ট্যান্ড এবং বড় খচাবাড়ি কামারপাড়া ঘুরে দেখাগেছে, কামার কারিগড়রা দা, বটি, কুঠার, কাটারী ও ছেনিসহ প্রয়োজনীয় লোহার যন্ত্রপাতি তৈরি করে পশরা সাজিয়ে বসে আছেন।

কিন্তু ক্রেতা নেই। দু’একজন ক্রেতা আসলেও তারা দাম কসাকসি করে চলে যাচ্ছেন নিচ্ছেন না। কামার শিল্পী রঞ্জিত কর্মকার বলেন, তেমন ক্রেতা নেই। তাই কাজও নেই। নিরবে বসে আছি। এ বছর কি অবস্থা হয় আল্লাই জানে।পাসের দোকানের এক ছেলে সুশান্ত কর্মকার বলেন, কোন ক্রেতা নাই। দুই এক জন ক্রেতা মাঝে মাঝে আসে যায়।

ঠাকুরগাঁও বড় খচাবাড়ি কামারপাড়া কাজ করেন রতন কর্মকার, তার বাসা বাসার সিংগিয়া, সে বলেন, করোনার কারনে মানুষ এখন আর কিছুই তৈরি করতে চায় না, ঈদকে সামনে রেখে তেমন কাজই নেই । কিছু কাজ হয় তা দিয়ে চলে না।তিনি আরো বলেন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারনে মানুষের পশু কোরবানীতে আগ্রহ নেই । কোরবানীতে আগ্রহ না থাকার কারনে লোহার তৈরি যন্ত্রাংশের তেমন কদর নেই। তাই কামার শিল্পীরা অলস সময় কাটাচ্ছেন। এ কামার শিল্পীদের বাঁচিয়ে রাখতে সরকারীভাবে প্রনোদনা দেয়া খুবই প্রয়োজন।

মোঃ জাহিরুল ইসলামঃ ঠাকুরগাঁও থেকে 

Some text

ক্যাটাগরি: খবর

  • 37
    Shares

Leave a Reply

বড়দের সোহবত: মুফতী আব্দুল্লাহ ইদরীস

খেলাধুলার শরয়ী বিধান

জয়পুরহাটে ভটভটি উল্টে নিহত ১:…

কুরবানীর ঈদেও অলস সময় কাটা‌চ্ছে…

প্রাণের ব্রাহ্মণবাড়িয়া গ্রুপের উদ্যোগে দুস্থ…