বৃহস্পতিবার রাত ৮:২৮, ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ২২শে অক্টোবর, ২০২০ ইং
প্রতিবেদন
বিতর্কিত মুফতি ফয়জুল্লার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সেই বিক্ষোভের ভিডিও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অনিয়ম-দুর্নীতির ভয়াবহ চিত্র ‘আঁরা টোকাই ন’, সী-বিচের দুই খেটে-খাওয়া শিশু সামাজিক আন্দোলন নিয়ে তারা রাজনীতি করছে: তথ্যমন্ত্রী নোয়াখালীতে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: বিক্ষুব্ধ সারাদেশ শিমরাইলকান্দি খাদ্যগুদামের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আবুল কাসেম ফজলুল হকের আটাশ দফা নিয়ে ভার্চুয়াল আলোচনা সরকারি রোষে ভারত ছাড়ল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জিয়াকে নিয়ে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে তারানা-সাজুর বিরুদ্ধে মামলা করোনাক্রান্তের পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু শিমরাইলকান্দি রাস্তার সংস্কার দাবিতে মানববন্ধন: মেয়রের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ কাজীপাড়া মৌলভীহাটি মসজিদের পুকুর এখন কচুক্ষেত

ভিপি নুরু ইমরান-লাকির ধারাবাহিকতা

জাকির মাহদিন

সমস্যা একটা নয়, বহু। এমন বহু নুরু, এমরান-লাকি, মাহী-সাকি অতীতে জোয়ারের পানির মতো এসেছে এবং ভেসে গিয়েছে। এসব খুবই সাময়িক, সরকারের বাঁ-হাতের খেলা। সুতরাং নিজের চিন্তা ও জ্ঞানের ভিত শক্ত করুন, নিজের কাজটি নিজে করুন। অন্যের ঘাড় বেয়ে যেতে চেষ্টা করবেন না।

বাংলাদেশি বাঙালিগুলা কতটা চিন্তাগত অক্ষম, জ্ঞানগত দুর্বল বা পঙ্গু তা বোঝা যায় সময়ে সময়ে তাদের নুরু, হিরো আলম, ইমরান সরকার, আন্ডালিব পার্থদের প্রতি ‘জাতীয় সমর্থন’ দেখে। প্রয়োজনে তারা মোশারফ করিমদের মতো কমেডি অভিনেতাদের হাতেও ‘জাতীয় মুক্তির’ দায়িত্ব তুলে দিতে প্রস্তুত। তবু তারা নিজেরা দীর্ঘদিনের চর্চিত ও লালিত ভুল-বিচ্ছিন্ন পথ ও চিন্তা-দর্শন থেকে ফিরবে না। নিজেদের রুটিরুজির সামান্যতম ঝুঁকি নিবে না। এরই নাম ‘খাঁটি বাঙালি’।

সম্পাদকের মিনি কলাম

শুধু সরকারের বিরোধিতা আর সমালোচনার নাম কোনো গঠনমূলক আন্দোলন বা রাজনীতি নয়- এটা এদেরকে কে বোঝাবে? নুরুর মতো পঞ্চাশটা পোলা-মাইয়া জোড়া দিলেও একজন চিন্তাবিদ, তাত্ত্বিক বা রাষ্ট্রনায়কোচিত ব্যক্তিত্ব ও জ্ঞানী তৈরি হবে না। এরা এখনো সমাজ, দর্শন, অর্থনীতি, গণনীতির ক.খ.গ বোঝে না। তাছাড়া এরা সমস্যাযুক্ত প্রচলিত ‘সিস্টেমের’ ভেতর দিয়েই এসেছে ও চলছে। অন্যদিকে এমন যে কোনো আন্দোলন-সংগ্রামের ফসল ছিনতাই হওয়া, ‘নেতা’ কর্তৃক প্রতারিত হওয়া খুবই স্বাভাবিক।

প্রয়োজনে তারা মোশারফ করিমদের মতো কমেডি অভিনেতাদের হাতেও ‘জাতীয় মুক্তির’ দায়িত্ব তুলে দিতে প্রস্তুত। তবু তারা নিজেরা দীর্ঘদিনের চর্চিত ও লালিত ভুল-বিচ্ছিন্ন পথ এবং চিন্তা-দর্শন থেকে ফিরবে না। নিজেদের রুটিরুজির সামান্যতম ঝুঁকি নিবে না।

সমস্যা একটা নয়, বহু। এমন বহু নুরু, ইমরান-লাকি, মাহী-সাকি অতীতে জোয়ারের পানির মতো এসেছে এবং ভেসে গিয়েছে। এসব খুবই সাময়িক, স্বাভাবিক। সরকারের বাঁ-হাতের খেলা। সুতরাং নিজের চিন্তা ও জ্ঞানের ভিত শক্ত করুন, নিজের কাজটি নিজে করুন। অন্যের ঘাড় বেয়ে যেতে চেষ্টা করবেন না। সরকারের হাজারো সমালোচনা করা কিংবা বুলেটের সামনে বুক পেতে দেয়ার চেয়ে নিজে একটা প্রচলিত সিস্টেম থেকে বেরিয়ে আসা অনেক শক্তিধর ও সাহসী কাজ।

জীবনের ঝুঁকি নেয়া এবং বুলেটের সামনে বুক পেতে দেয়া একজন ডাকাত কিংবা সন্ত্রাসীর পক্ষেও খুবই সহজ। সুতরাং প্রকৃত অর্থেই বুকের পাটা থাকলে প্রচলিত শিক্ষা-ডিগ্রি, নির্বাচন, অর্থব্যবস্থা, চাকরি, সুদ-ঘোষ, তথাকথিত হাদিয়া-সম্মানী, উগ্রতা, বাকপটুতা পরিত্যাগ করুন। তারপর নিজ চক্ষে দেখুন ও দেখান আন্দোলন বা বিপ্লব ‘কাহাকে’ বলে!

আরো পড়ুন> ক্ষমতাই ‘রাজনীতির শেষ কথা’

ভিপি নুরু ইমরান-লাকিদেরই একটা ধারাবাহিকতা। সরকারকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকারবিরোধী একটা আন্দোলন থাকতে হয়, তাই আছে। এছাড়া এ জাতীয় ভোগবাদী দৃষ্টিভঙ্গির তথাকথিত আন্দোলন সমালোচনার কোনো শক্তি নেই। অন্যদিকে বর্তমান রাষ্ট্র ও সরকারব্যবস্থা অনেক শক্ত, সংগঠিত এবং সশস্ত্র। ব্যাপক প্রভাবধর্মী চিন্তাগত বিপ্লব ছাড়া, আন্দোলনের সুস্পষ্ট দার্শনিক পার্থক্য ও ভিত্তি ছাড়া জাতীয় পর্যায়ের গঠনমূলক কোনো কিছুই আশা করা চরম বোকামী।

জাকির মাহদিন : সম্পাদক, দেশ দর্শন

ক্যাটাগরি: মিনি কলাম

ট্যাগ: জাকির মাহদিন,  সম্পাদকের মিনি কলাম

  • 192
    Shares

Leave a Reply