সোমবার রাত ১২:০৬, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ ইং

এবার স্বামীর করা যৌতুক মামলায় স্ত্রী শ্রীঘরে

এবার স্বামীর করা যৌতুকের মামলায় স্ত্রী কারাগারে গেছেন। বৃহস্পতিবার চাঁদপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কফিল উদ্দিনের (মতলব উত্তর) আমলি আদালতে আসামি (স্ত্রী) মনি আক্তার মিতু জামিন নিতে এলে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার সুজাতপুর গ্রামের দুলাল মিজির কন্যা মনি আক্তার মিতুর সঙ্গে একই উপজেলার উত্তর গাজীপুর গ্রামের সিরাজবাগের পুত্র নুর মোহাম্মদের ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেনমোহরে দুই বছর আগে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর মনি আক্তার মিতু ও তার পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন সময়ে তার স্বামীর কাছে নগদ ৩ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন।

দাবিকৃত নগদ টাকা না দেওয়ায় বিভিন্ন সময় তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে এবং ভয়ভীতি দেখায়। এরপর নুর মোহাম্মদ বাদী হয়ে স্ত্রী ও শ্বশুরের বিরুদ্ধে ১৫ জুলাই ২০২১ তারিখে চাঁদপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (মতলব উত্তর) আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে সিআর ১৮৯/২১ মামলায় আসামি মনি আক্তার মিতুসহ অন্য আসামিদের সমন দিলে আসামিরা বৃহস্পতিবার দুপরে আদালতে জামিন নিতে আসেন। এ সময় আদালত স্ত্রীকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে মামলার বাদী নূর মোহাম্মদ বলেন, আমার স্ত্রী মনি আক্তার মিতু ও তার পরিবার মিলে ৩ লাখ টাকা দাবি করে আমার জীবনটা তছনছ করে দিচ্ছিল। তাই এ ঘটনাটি আদালতকে অবহিত করি। পরে আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে মিতুর বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। পরে মিতু বৃহস্পতিবার আদালতে জামিন নিতে গেলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিবাদীর আইনজীবী আব্দুল আজিজ বলেন, তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষ হওয়ার পরই শুরু হয় যত বিপত্তি। বাদী পরিকল্পিতভাবে বিবাদীগণের বিরুদ্ধে একটি সাজানো মামলা দায়ের করেছেন। আমরা আগামী সপ্তাহে তার জামিনের জন্য আদালতে আবেদন প্রার্থনা করব।

ক্যাটাগরি: অপরাধ-দুর্নীতি,  শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ:

Leave a Reply