শুক্রবার রাত ৯:০০, ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং
প্রতিবেদন
নেত্র‌কোনা হাও‌রে ভ্রম‌ণে এসে ১৭ হা‌ফেজ-আ‌লে‌মের মৃত্যু গরুর চামড়ার গোশত অনেক সুস্বাদু ও পুষ্টিকর অথৈ জলে ভাসছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিম্নাঞ্চল (ভিডিও) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ফেন্সিডিলসহ আটক ত্রিমু‌খী দু‌র্যো‌গেও জ‌মে উঠে‌ছে ঐ‌তিহ‌্যবাহী না‌জিরপুর কুরবা‌নী হাট ব্রাহ্মণবাড়িয়া হার্ট ফাউন্ডেশনের হার্ট অ্যাটাক! দুর্গাপু‌রে কে‌ন বাড়‌ছে আত্মহত‌্যা, প্র‌তিকার কী? সাংবাদিক সম্মেলনে গোঁজামিল বক্তব্য: ফেঁসে গেলেন ডাঃ সাঈদ শাহেদের আরেক নাম ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ডাক্তার সাঈদ করোনায় মারা গেলেন যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুল সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন মারা গেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে মামলা

চীনকে সামলাতে গোয়া খুলে দিয়েছে ভারত

ডিডি ডেস্ক

যদিও গোয়ার বেশির ভাগ সৈকত নিরাপদ। তারপরও কিছু মৌলিক নিরাপত্তার বিষয় মেনে চলার পরামর্শ দেয় কর্তৃপক্ষ। ১ জুলাই রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী মনোহর অজগাঁওকর এ ঘোষণা দেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার থেকেই গোয়ায় ঘুরতে যেতে পারছেন ভ্রমণপিপাসুরা। তবে মেনে চলতে হবে কিছু শর্ত। গোয়ায় প্রতিটি সৈকতের প্রবেশপথে নিরাপত্তা সম্বলিত সংকেত দেওয়া আছে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে তিনি জানান, ২৫০টি হোটেলকে কাজ শুরু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এ সৈকত শহরে এসে পর্যটকদের থাকতে কোনো সমস্যা হবে না। তবে কোনোভাবেই যেন সং’ক্রমণ না ছড়ায়, সে দিকেও কঠিন নজরদারি রাখা হবে। বিষয়টি নিশ্চিত করতে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে স্থানীয় প্রশাসন।

সূত্র জানায়, গোয়া সৈকত শহরে ভ্রমণে গেলে পর্যটককে দেখাতে হবে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট। এটি সঙ্গে করে নিয়ে যেতে পারলে কোনো ঝামেলাই থাকবে না। না হলে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তা জমা দিতে হবে প্রশাসনের কাছে। একান্তই যদি কেউ তা সংগ্রহ করতে না পারেন। তাহলে গোয়াতেই বাধ্যতামূলকভাবে পরীক্ষা করানো হবে।

মন্ত্রী মনে করেন, করোনা আত’ঙ্কে এখনো ভীত প্রায় সারা বিশ্ব। ভারতেও দাপট দেখিয়ে চলছে ভাইরাসটি। তবুও রাজ্যের মন্ত্রিসভার বৈঠকেই গোয়া খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। তবে দেশের সরকারের অনুমতি ছাড়া কোনো হোটেল বা আবাসন খোলা যাবে না। সেই সঙ্গে থাকতে হবে করোনা নেগেটিভ সনদ।

ক্যাটাগরি: শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ:

  • 325
    Shares

Leave a Reply