রবিবার বিকাল ৪:৩৪, ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৩১শে মে, ২০২০ ইং
প্রতিবেদন
নারায়নগঞ্জে গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ: চারটি নিউজ পোর্টাল বন্ধ কপিপেস্ট সাংবাদিকতা বিষয়ে কথাগুলো আমারই: দুর্গাপুর প্রেসক্লাব সভাপতি দেশ দর্শনে “সম্পাদকের লাইভ” নামে সাপ্তাহিক আলোচনা (ভিডিও) সরাইল সদরের মৃৎ শিল্পীদের দুর্দিন রাজধানীর ব্যাংকগুলো করোনার অভয়াশ্রম দুর্গাপুরে চলছে কপিপেস্ট সাংবাদিকতা: ক্ষুব্ধ সচেতন মহল করোনাকে বাংলাদেশের ঈদের দাওয়াত ‘সেলফি দানবীরদের’ বিরিয়ানি বিতরণ! ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়ও দৈহিক দূরত্বের কোনো বালাই নেই! একজন রিকশাওয়ালার আর্তনাদ: মুখে ভাষা নেই করোনারোধে আগের তুলনায় মানুষ বেশি ধর্মমুখী হচ্ছে মসজিদ খুলে দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ‘আলেমদের’ ধন্যবাদ জানানোর হিড়িক

দুর্গাপুর সাংবাদিকদের নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

দেশ দর্শন ডেস্ক

বরাবর: সম্পাদক, দেশ দর্শন। বিষয়: প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

জনাব, আপনার অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে জানাচ্ছি যে, গত ১২ এপ্রিল আপনার নিউজ পোর্টাল দেশ দর্শনে “নেতাপেতা ও প্রশাসনের দালালিতে ব্যস্ত দুর্গাপুরের সাংবাদিকরা” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। যা দুর্গাপুরে প্রেসক্লাবে কর্মরত সাংবাদিকসহ অন্যান্য সাংবাদিকদের সম্মানে আঘাত হেনেছে।

উক্ত প্রকাশিত সংবাদটি নিয়ে দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিগগণ তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। নেত্রকোনা জেলার মধ্যে দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের সংবাদকর্মীগণ অত্যন্ত সুনামের সাথে তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন বিধায় প্রকাশিত সংবাদের ভাষা ও শিরোনাম আমাদের কষ্টের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমাদের এই প্রতিবাদলিপিটি আপনার দেশ দর্শনে প্রকাশ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

ধন্যবাদান্তে: নির্মলেন্দু সরকার বাবুল, সভাপতি

ও মোঃ তোবারক হোসেন, সাধারণ সম্পাদক

দুর্গাপুর প্রেসক্লাব

দুর্গাপুর প্রেসক্লাব থেকে পাঠানো প্রতিবাদলিপি

প্রতিবেদকের মন্তব্য: দেশ দর্শনে নেতাপেতা ও প্রশাসনের দালালিতে ব্যস্ত দুর্গাপুরের সাংবাদিকরা শিরোনামে প্রকাশিত  প্রতিবেদনটি আমি দুর্গাপুরের সিংহভাগ সাংবাদিকের নিউজ-প্রতিবেদন দীর্ঘদিন পর্যবেক্ষণ করে লিখেছি। প্রতিবেদনেও তার প্রমাণ রাখতে চেষ্টা করেছি। এতে সেখানকার সৎ সাংবাদিকগণকে কোনো প্রকার হেয় বা কষ্ট দেওয়ার কোনো উদ্দেশ্যে আমার ছিলো না। উদ্দেশ্য ছিলো, যেসব সাংবাদিক কিছু উপরি পাওনার জন্য প্রশাসন ও ‘নেতাকর্মীদের’ গুণগানে ব্যস্ত, তাদের এ কাজ থেকে ফিরে আসার একটা বার্তা দেওয়া। আশা করি তারা সেটা পেয়েছেন।

দুর্গাপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিগগণ কষ্ট পেয়েছেন জেনে আমিও মর্মাহত। তবে প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদেরকে কষ্ট দেওয়া বা হেয় করার উদ্দেশ্যে আমি উক্ত প্রতিবেদনটি করিনি এবং সব সাংবাদিকদেরকে ঢালাওভাবে বলিনি। বরং প্রতিবেদনে বলা হয়েছে “তবে সব সাংবাদিক এমন না। কেউ কেউ তাদের দুঃখ-কষ্টগুলোও তুলে ধরার চেষ্টা করছেন।” দুর্গাপুরের সৎ সাংকবাদিকদের প্রতি আমি আগেও শ্রদ্ধাশীল ছিলাম, এখনো আছি। যদি আমার সেই প্রতিবেদনের দ্বারা কোনো সৎ, যোগ্য ও সাহসী সাংবাদিক কষ্ট পেয়ে থাকেন, তবে আমি ক্ষমাপ্রার্থী।

জুনায়েদ আহমেদ: স্টাফ রিপোর্টার, দেশ দর্শন

 

 

শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

  • 16
    Shares

Leave a Reply