সোমবার সন্ধ্যা ৬:৪৪, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ ইং
প্রতিবেদন
ক‌রোনায় ১৭ জন সাংস‌দের মৃত্যু: দ্বিতীয় ঢেউয়ে আ‌রো শতাধিক আক্রান্ত পুরো ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর এখন ডাস্টবিন হরতালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সরকারী গণগ্রন্থাগার ধ্বংস (ভিডিও) মোদীবিরোধী বিক্ষোভে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিহত ১, আহত অনেক এমপি মোকতাদিরের অনুদানপ্রাপ্ত বৃদ্ধার সাক্ষাৎকার ও ধর্মানুভূতি বাংলা‌দে‌শে ৯ লাখ মুসলমান খ্রিস্টান হ‌য়ে‌ছে: খ্রিস্টান ফাদার মুফতি নুরুল্লার ছেলে বেলায়েতুল্লাহ নুর আর নেই ওয়াজ-মাহ‌ফিলগুলো এখন মেলায় প‌রিণত: মুফতী জামালুদ্দীন ঘূর্ণিঝড় আম্ফান: এখনো পানিবন্দি ৩৬ হাজার মানুষ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলন: ৬ ডিসেম্বর অবস্থান কর্মসূচী নেশার রাজ্য বাংলাদেশ: আক্রান্ত যুবসমাজ ডাক্তার নেই: সরাইল উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ

মামুনুল ও আপনাদের মুখোশ একই

জাহাঙ্গীর আলম বিপ্লব

উগ্রবাদীরা এরকম ঘটনায় যা করতো, আপনারাও সেটাই করলেন, প্রগতিশীলতার মুখোশ লাগিয়ে। মুখোশধারীরা সব সময়ই মানুষের জন্য খারাপ। সে যে মুখোশই পরুক না কেন!

রিসোর্টে দুজন মানুষ স্বেচ্ছায় গিয়েছে কিনা ওটা দেখা উচিত ছিল আপনাদের, ব্যক্তি মামুনুল শুধু উদাহরণ। আমি মামুনুল হকের পক্ষে সাফাই গাইছি না। সে আমার যতো বড়ো শত্রুই হোক, আমি চাইবো না তার স্বাধীনতা হরণ। ব্যক্তি স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি আমি। আমার এই স্বাধীনতা কারও হাতে তুলে দিতে চাই না।

শত্রুর দুর্বল জায়গা পেলে চড়াও হবো- এর মধ্যে কোনো বীরত্ব নেই। এটা তো অন্ধ উগ্রবাদের হাতিয়ার। যারা মামুনুল হকের এ ঘটনায় মজা নিচ্ছেন, তারা আয়নায় নিজের মুখটা দেখলেই বুঝবেন। রাজনৈতিক বা সামাজিকভাবে মামুনুলের মুখোশ আর আপনাদের মুখোশ এক না হলেও আপনারা কিন্তু মুখোশধারীই!

আরো পড়ুন> ধর্ষকরা ‘আসল ছাত্রলীগ’ না

উগ্রবাদীরা এরকম ঘটনায় যা করতো, আপনারাও সেটাই করলেন, প্রগতিশীলতার মুখোশ লাগিয়ে। মুখোশধারীরা সব সময়ই মানুষের জন্য খারাপ। সে যে মুখোশই পরুক না কেন! তবে মামুনুলের জায়গায় অন্য কেউ করলে কিন্তু এটাকে অনেকে ক্রাইম হিসেবে দেখতো না। তখন কিন্তু এটাই বলতো, কে কার সাথে যাবে সেটা একান্তই তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত, কেউ অন্যের ব্যাপারে নাক গলানোর অধিকার নেই … ব্লা ব্লা ব্লা।

এখানেই আমার আপত্তি। আর আমার এ লেখার প্রসঙ্গ শুধুমাত্র ব্যক্তি মামুনুল হক না, সামগ্রিকভাবে সকল মানুষের ব্যক্তি স্বাধীনতা। অন্যের ব্যক্তিগত বিষয়ে নাক গলাতে যেয়ে আমাদের সমাজটা এগুতে পারছে না। এর জন্য উগ্রবাদ না কি তথাকথিত শিক্ষিত সমাজ প্রধান অন্তরায়- ভেবে কূল-কিনারা করতে পারি না। এই কথাগুলো উচ্চমার্গীয় প্রগতিশীলতার মোড়কে ঠাসাদের বুঝানো কঠিন!

লেখকের ব্লগ

জাহাঙ্গীর আলম বিপ্লব: লেখক, সাংবাদিক

ক্যাটাগরি: মিনি কলাম

ট্যাগ: জাহাঙ্গীর আলম বিপ্লব

Leave a Reply