রবিবার দুপুর ১:৫৫, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং

যু‌ক্তির আ‌ফিমে আজ অসুস্থ পৃথিবী

যু‌ক্তির সা‌থেই আমা‌দের বসবাস। বহু যু‌ক্তির দ্বারা আচ্ছন্ন হ‌য়ে আ‌ছে চিন্তা ও মন। যখনই আমরা আমা‌দের সব‌চে‌য়ে শ‌ক্তিশালী অস্ত্র- কথা‌কে ব্যবহার ক‌রি, তখনই আমরা উপস্থাপন ক‌রি যু‌ক্তি। কো‌নো না কো‌নো যু‌ক্তি দ্বারা আমরা আমা‌দের পক্ষ‌কে শ‌ক্তিশালী কর‌তে চাই। বর্তমান বাস্তবতাই আমা‌দের বল‌ছে, এসব যু‌ক্তি কতটা নিম্নমা‌নের আর জঞ্জালস্বরূপ। এসবের ব্যবহা‌রে আজ পৃ‌থিবী বিশৃঙ্খল। অথচ যু‌ক্তি হ‌লো নি‌রেপক্ষ হি‌সে‌বে মানুষ‌কে গ‌ড়ে তোলার এক অনন্য মাধ্যম। যু‌ক্তিবদ্ধ অবস্থায় যু‌ক্তি নি‌জেই আজ অযু‌ক্তি হ‌য়ে প‌ড়ে‌ছে। তাই যু‌ক্তিরও মুক্তচর্চা বি‌শেষ জরু‌রি।

‘অজুহা‌তের’ ম‌তো আমরা আজ যু‌ক্তি‌কে ব্যবহার কর‌ছি স্বার্থ হা‌সি‌লের উ‌দ্দে‌শ্যে। যু‌ক্তিও হ‌য়ে প‌ড়ে‌ছে ব্যবসা‌য়িক প‌ণ্য। তাই অজস্র অযু‌ক্তি‌কে পুঁ‌জি ক‌রে চল‌ছে যু‌ক্তির ব্যবসা। যেখা‌নেই পুঁ‌জি বৃ‌দ্ধির সম্ভাবনা তৈ‌রি হয়, সেখা‌নেই আ‌সে তার প‌ক্ষে যু‌ক্তি। পুঁ‌জি‌কে আঁক‌ড়ে ধরা ব্যতীত কো‌নো মুক্ত যু‌ক্তি আজ নেই। তাই যেখা‌নেই যাই, চারপা‌শে পুঁ‌জির থাবা আর করাল গ্রাস ছাড়া কিছুই দেখি না।

“প্রকৃত যু‌ক্তি বা মুক্তযুক্তি মানুষ‌কে একাত্মকরণ ও সমন্বয়ধর্মী হি‌সে‌বে গ‌ড়ে তো‌লে। কিন্তু বর্তমা‌নে যু‌ক্তি যেন আ‌ফি‌মের অনুরূপ। কারণ এসব যু‌ক্তি প্র‌তি‌নিয়ত বি‌চ্ছিন্নতা ও ফ্যাসাদ ব্যতীত আর কিছুই তৈ‌রি কর‌তে পার‌ছে না।”

মুক্তযুক্তি ব্যতীত বিশ্বা‌সের ভিত মজবুত হয় না। তাই তো মানুষ আজ এসব যু‌ক্তি দি‌য়ে বিশ্বা‌সের বিভ্রা‌ন্তে প‌তিত হয়। অথচ এসব যু‌ক্তির দ্বারা কা‌লে কা‌লে মনুষ্য সমাজ ধ্বং‌সের দ্বারপ্রান্ত হ‌তে পুনর্জী‌বিত হ‌য়ে আদ‌র্শের অনুপম ভিত নির্মাণ ক‌রার ছিল।

লেখকের সব কলাম

প্রকৃত যু‌ক্তি বা মুক্তযুক্তি মানুষ‌কে একাত্মকরণ ও সমন্বয়ধর্মী হি‌সে‌বে গ‌ড়ে তো‌লে। কিন্তু বর্তমা‌নে যু‌ক্তি যেন আ‌ফি‌মের অনুরূপ। কারণ এসব যু‌ক্তি প্র‌তি‌নিয়ত বি‌চ্ছিন্নতা ও ফ্যাসাদ ব্যতীত আর কিছুই তৈ‌রি কর‌তে পার‌ছে না। আ‌ফি‌মের মো‌হ যেমন বু‌দ্ধি, বি‌বেক, চিন্তা‌কে গ্রাস ক‌রে মানুষ‌কে যন্ত্র‌ে প‌রিণত ক‌রে, তেমনি এসব যু‌ক্তির আ‌ফিমও মানুষ‌কে একইভা‌বে মোহগ্রস্ত ক‌রে রে‌খে‌ছে।

আরো পড়ুন> সবকিছুতেই লাভ-ক্ষতির হিসাব!

তাই তা‌দের সাম‌নে যতই আদ‌র্শিক ও বাস্ত‌বিক প্রেক্ষাপ‌টের আ‌লো‌কে নতুন কো‌নো যু‌ক্তি উপস্থাপন করা হোক, নি‌জের প‌ক্ষে না গে‌লে তা‌কে পুরাতন আবর্জনাযুক্ত যু‌ক্তি দ্বারা প্রত্যাখান ক‌রে। অযু‌ক্তি যু‌ক্তির ভি‌ত্তি হ‌লে সমাজ, রাষ্ট্র, সংস্কৃ‌তি ধ্বং‌সের মু‌খে প‌তিত হওয়াই স্বাভাবিক। এদিকে তারাই বল‌ছেন আবার কু‌য়োর ব্য‌া‌ঙের গল্প। এ প্রবঞ্চনা ব্যতীত আর কিছু নয়!

লেখকের ব্লগ

শরীফ উদ্দীন রনি : শিক্ষক, কলামিস্ট

sharifuddin420953@gmail.com

ক্যাটাগরি: মিনি কলাম

ট্যাগ: শরীফ উদ্দীন রনি

Leave a Reply