সোমবার বিকাল ৫:৩৩, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ১৯শে এপ্রিল, ২০২১ ইং
প্রতিবেদন
ক‌রোনায় ১৭ জন সাংস‌দের মৃত্যু: দ্বিতীয় ঢেউয়ে আ‌রো শতাধিক আক্রান্ত পুরো ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর এখন ডাস্টবিন হরতালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সরকারী গণগ্রন্থাগার ধ্বংস (ভিডিও) মোদীবিরোধী বিক্ষোভে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিহত ১, আহত অনেক এমপি মোকতাদিরের অনুদানপ্রাপ্ত বৃদ্ধার সাক্ষাৎকার ও ধর্মানুভূতি বাংলা‌দে‌শে ৯ লাখ মুসলমান খ্রিস্টান হ‌য়ে‌ছে: খ্রিস্টান ফাদার মুফতি নুরুল্লার ছেলে বেলায়েতুল্লাহ নুর আর নেই ওয়াজ-মাহ‌ফিলগুলো এখন মেলায় প‌রিণত: মুফতী জামালুদ্দীন ঘূর্ণিঝড় আম্ফান: এখনো পানিবন্দি ৩৬ হাজার মানুষ ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে রিক্সা-ভ্যান শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলন: ৬ ডিসেম্বর অবস্থান কর্মসূচী নেশার রাজ্য বাংলাদেশ: আক্রান্ত যুবসমাজ ডাক্তার নেই: সরাইল উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ

সরকারি রোষে ভারত ছাড়ল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

গত মাসে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছিল, “ফেব্রুয়ারিতে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে দাঙ্গার সময় পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে।”

ভারতে কার্যক্রম স্থগিত করেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন ‘অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল’। আজ মঙ্গলবার এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। অ্যামনেস্টি এক সংবাদ বিবৃতিতে বলেছে, চলতি মাসের শুরুর দিকে ভারতে তাদের ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ করা হয়। তাই তারা তাদের কর্মীদের ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়।

ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধের ঘটনায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ‘উইচ-হান্ট’-এর অভিযোগ তুলেছে অ্যামনেস্টি। লন্ডনভিত্তিক এই আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনের অভিযোগ, বিভিন্ন বিষয়ে প্রতিকূল প্রতিবেদনের জেরে অ্যামনেস্টির বিরুদ্ধে ভারত সরকার এমন ব্যবস্থা নিয়েছে।

অ্যামনেস্টির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগে মানবাধিকার সংগঠনের বিরুদ্ধে ভারত সরকার কর্তৃক অবিরত ‘উইচ-হান্ট’-এর সবশেষ ঘটনা এটি। অ্যামনেস্টি আরো জানায়, ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক তাদের ব্যাংক হিসাব পুরোপুরি অবরুদ্ধ করার বিষয়টি তারা ১০ সেপ্টেম্বর জানতে পারে। ব্যাংক হিসাব অবরুদ্ধ করায় ভারতে অ্যামনেস্টির সব কাজ থমকে যায়। তারা ভারতে তাদের কর্মীদের ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। প্রচার ও গবেষণার চলমান সব কাজ স্থগিত করতে হয়।

ভারত সরকারের দাবি, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনটি বেআইনিভাবে বিদেশি ফান্ড সংগ্রহ করছে। আর তারা ফরেন কনট্রিবিউশন (রেগুলেশন) আইনে সংগঠনের নাম নিবন্ধিতও করেনি। এদিকে অ্যামনেস্টির ভাষ্য, তারা ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক আইন মেনেই কাজ করে আসছে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এর জ্যেষ্ঠ পরিচালক রজত খোসলা বলেন, ‘ভারতে আমরা সরকারের আগ্রাসনের মুখে পড়েছি। তারা নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে সেখানে আমাদের হয়রানি করছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যে মানবাধিকার কাজ করে যাচ্ছিলাম এবং ভারতে সরকারের কাছে যে প্রশ্ন উত্থাপন করেছিলাম তার উত্তর তারা দিতে চাচ্ছে না। দিল্লির দাঙ্গার বিষয়ে আমাদের তদন্ত বা জম্মু ও কাশ্মীরের ঘটনায় আমাদের প্রতিবেদনের উত্তর না দিয়ে তারা অন্য ব্যবস্থা নিচ্ছে।’

গত মাসে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছিল, “ফেব্রুয়ারিতে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে দাঙ্গার সময় পুলিশ মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে।”

ক্যাটাগরি: শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ: আন্তর্জাতিক

Leave a Reply