বৃহস্পতিবার বিকাল ৪:০৮, ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ. ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং
প্রতিবেদন
ডাক্তার নেই: সরাইল উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ রিক্সা-ইজিবাইক লাইসেন্স দাবিতে উত্তাল ব্রাহ্মণবাড়িয়া: দাবি ৫দফা ‘আটাশ দফা’ নিয়ে দফাভিত্তিক ভার্চুয়াল আলোচনা বিতর্কিত মুফতি ফয়জুল্লার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সেই বিক্ষোভের ভিডিও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অনিয়ম-দুর্নীতির ভয়াবহ চিত্র ‘আঁরা টোকাই ন’, সী-বিচের দুই খেটে-খাওয়া শিশু সামাজিক আন্দোলন নিয়ে তারা রাজনীতি করছে: তথ্যমন্ত্রী নোয়াখালীতে নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন: বিক্ষুব্ধ সারাদেশ শিমরাইলকান্দি খাদ্যগুদামের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আবুল কাসেম ফজলুল হকের আটাশ দফা নিয়ে ভার্চুয়াল আলোচনা সরকারি রোষে ভারত ছাড়ল অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জিয়াকে নিয়ে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে তারানা-সাজুর বিরুদ্ধে মামলা

বৈবাহিক মিলন ধর্ষণ নয়

সজিব মজিদ

আইন প্রণেতাদের ভাবতে হবে, নারীঅধিকার ও নারীসুরক্ষা সুনিশ্চিত বা প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে দাম্পত্য জীবনের মধ্যে পরাধীনতার সীমাবদ্ধতা আনয়ন করলে সেটা হয়ে উঠতে পারে পুরুষের বিপক্ষে পক্ষপাতিত্বের দেয়াল।

বিবাহিত জীবনে স্বামী-স্ত্রী যৌন মিলনের যৌথ সম্মতি বহির্ভূত সঙ্গমকে ধর্ষণের মতো গুরুতর অপরাধে অভিযোগ হিসাবে নেয়াকে আমি সমর্থন করি না। যৌনাকাঙ্ক্ষা ব্যক্তির স্বতন্ত্র মানসকেন্দ্রিক। এটা সবসময় যৌথ প্রযোজনায় আসবে এমনটা নাও হতে পারে।

কখনো নারীর আকাঙ্ক্ষায় মিলন সংঘটিত হয়, কখনো পুরুষের আকাঙ্ক্ষায় হয়। আবার কখনো কখনো যৌথ আকাঙ্ক্ষায় হয়। যারা বৈবাহিক জীবনে প্রবেশ করেছেন তারা অবশ্যই এ বিষয়ে অভিজ্ঞ। স্বামী-স্ত্রীরা সবসময় যে নিজের চাহিদা থেকেই যৌন সম্পর্কে যায় তা নয়, সঙ্গীর চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে চাহিদা না থাকা সত্বেও অনেক সময় সঙ্গমে লিপ্ত হতে হয়। তবে অসুস্থতা বা ঋতুকালীন পরিস্থিতি অবশ্যই বিবেচনার বিষয়।

আইন প্রণেতাদের ভাবতে হবে, নারীঅধিকার ও নারীসুরক্ষা সুনিশ্চিত বা প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে দাম্পত্য জীবনের মধ্যে পরাধীনতার সীমাবদ্ধতা আনয়ন করলে সেটা হয়ে উঠতে পারে পুরুষের বিপক্ষে পক্ষপাতিত্বের দেয়াল। এতে দুষ্টুবুদ্ধির নারীগণ এমন শাণিত অস্ত্র হাতে পেয়ে অল্প অসন্তোষকে কেন্দ্র করে বৈধ স্বামীর প্রতি ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগ আনতে পারে। সেক্ষেত্রে দাম্পত্য জীবনে অনিরসনযোগ্য সমস্যা বৃদ্ধি পাবে। ক্রমাগত বিচ্ছেদের হার বাড়াবে।

আরো পড়ুন> কফি আন তো কাঠের পুতুল!

আমরা দেখছি- নারী নির্যাতন আইণের অপব্যবহারে বহু পুরুষকে বিনা অপরাধে জেলের ঘানি টানতে হয়। অতিরিক্ত কাবিন ধার্য করে ছেলেদের ফাঁদে ফেলে হেনস্তা করে। নারীরা যৌতুকের মামলা করতে পারে, নারী নির্যাতন মামলা করতে পারে, কিন্তু স্বামীর কাছেও স্ত্রীর যৌতুক দাবি হয় স্ত্রীর বাবা মায়ের পক্ষ থেকেও যৌতুক অনাদায়ে বহু সংসারকে বিচ্ছেদের ক্ষেত্র তৈরি করে। এ ব্যপারে ‘পুরুষ নির্যাতন’ নারীর বিরুদ্ধে যৌতুকের অভিযোগ তুলতে পারে বা মামলা করতে পারে তেমন কোনো বিধি আইনে নেই। দিনের পর দিন সয়ে যায়, মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়েও পুরুষের মুখ বন্ধ থাকে, হাতবাঁধা, ঝুলে থাকে।

এ রকম অসম আইনের করাল গ্রাসে নারী-পুরুষের মধ্যে সম্পর্কের অনুপম উন্নয়ন সম্ভব হয় না। একপক্ষ আরেক পক্ষের দ্বারা নিগ্রহের শিকার হয়। সব অস্ত্র একপক্ষের হওয়ায় নারী-পুরুষ সম্পর্কের সমতা থাকছে কি না সেটাও ভাবতে হবে।

সজিব মজিদ: কবি ও কথাশিল্পী

ক্যাটাগরি: মিনি কলাম

ট্যাগ:

  • 75
    Shares

Leave a Reply