সোমবার সন্ধ্যা ৬:৩৪, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং

ভাষা সাহিত্য সাংবাদিকতা কোর্স-২০১৬: যা বলেছিলেন জাকির মাহদিন

১৭৪ বার পড়া হয়েছে
মন্তব্য ০ টি

তখন ঘরির কাটায় সকাল নয়টা প্রায়। রমজান মাস। বেফাক বোর্ড কর্তৃক আয়োজিত “ভাষা, সাহিত্য ও সাংবাদিকতা কোর্স ২০১৬” এর একজন অন্যতম প্রশিক্ষক ছিলেন দেশ দর্শন সম্পাদক জাকির মাহদিন। তিনি সেদিন উপস্থিত হন আমাদের উদ্দেশে কিছু বলতে।কোর্স পরিচালক হানিফ আল হাদী সাহেব ক্লাস নিচ্ছেন। সালাম দিয়ে ছাত্রের ন্যায় সরাসরি বসে পড়লেন মাহদিন স্যার। চেয়ারে বসতে অনেক পিড়াপিড়ি করলেও তিনি নিচেই বসে রইলেন।

মাহদিন সাহেব আলোচনার প্রারম্ভেই হাদী সাহেবের আপ্যায়ন গ্রহণ না করার কারণ এভাবে ব্যক্ত করেন- “বর্তমান দুনিয়ায় সবকিছুতেই ভেজাল, এমনকি আমাদের চোখে সম্মানিতদের সম্মান প্রদর্শনের ক্ষেত্রেও লৌকিকতা, বাড়াবাড়ি। যার ফলশ্রুতিতে চোর-ডাকাত, সন্ত্রাসী, এমপি মন্ত্রীরাও তাদের কুকর্মের উপর অটল থাকতে আরও বেশি অনুপ্রাণিত হচ্ছে।”

তিনি আরও বলেন, “দ্বীনের খেদমত যারাই বিনা পয়সায় করতে যাবে, অবশ্যই তাদের উপর পরিবার, বন্ধুমহল, সহকর্মীসহ পুরো বিশ্বের চতুর্মুখী চাপ আসবে “ তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, “একটা দুমোখা কৌটার উভয় পার্শ্ব যদি বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং যে কোনো পদ্ধতিতে ভিতরের পূর্ণ বাতাস বের করে দেওয়া হয়, তাহলে সারাবিশ্বের বাতাস তাকে একযোগে এমনভাবে চাপ দিবে যে কৌটার মুখ দুটো যদি হালকা হয় তাহলে ভেঙে যাবে।”

আমরা জিজ্ঞেস করি, তবে এই ‘বিশ্বচাপ’ আমরা কিভাবে মোকাবেলা করব? প্রদোত্তরে তিনি কয়েকটি দিক তুলে ধরে বলেন, মানুষের অন্তর এমন এক শক্তিশালী বস্তু যার পরিশুদ্ধতা ও যথেষ্ট জ্ঞানের ভাণ্ডার পুরো বিশ্বের মোকাবেলা করতে সক্ষম।

আরেকটি দিক উল্লেখ করে বলেন, তুমি কাউকেই তোমার বিরোধী মনে করতে পারবে না। কেননা তাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যারা না বোঝেই তোমার বিরোধিতায় লিপ্ত। সুতরাং তুমি তাদের এ কথা বোঝাতে সক্ষম হতেও পারো যে, ইসলাম আমাদের সবার। শুধু ‘আমাদের’ ‘আমাদের’ (শুধু মুসলমানদের) জপো না।

উপসংহার: আমরা সবাই তার জ্ঞানগর্ভ আলোচনায় মুগ্ধ। তিনি উচ্চতর একাডেমিক পড়াশোনা না করেও শৈল্পিক ও নিজ অভূতপূর্ণ কর্মকাণ্ড দ্বারা সুধী ও বিজ্ঞ মহলে যথেষ্ট সুনাম কুড়িয়ে নিতে সক্ষম হন। আমরা তার সুস্বাস্হ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

বিঃ দ্রঃ উপরের প্রবন্ধটি আমাদের সেদিনের জাকির মাহদিন স্যারের ক্লাসের বক্তব্যের উপর ভিত্তি করে একজন প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে আমার লেখা মন্তব্য প্রতিবেদন।

মোঃ মনিরুল ইসলাম

মুহাদ্দিস, জামিয়া আব্দুল্লাহ ইবনে উমর : দোহার, ঢাকা

রচনা-১২/৬/২০১৬

Some text

ক্যাটাগরি: মতামত

Leave a Reply

বৌয়ের বয়স কম

শ্রীমঙ্গল শহরের স্মৃতি