শুক্রবার সকাল ৯:৪৮, ১৫ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ৩০শে জুলাই, ২০২১ ইং

নরসিংদীতে জেলা প্রশাসকের বিদায়ী সংবর্ধনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

নরসিংদীতে জেলা প্রশাসক হিসেবে তিন বছরেরও বেশী সময়কাল অতিক্রান্ত হওয়ার পর সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের উপসচিব হিসেবে পদায়িত হওয়ায় নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনকে যৌথভাবে আনুষ্ঠানিক শ্রদ্ধাভিনন্দন প্রদান করেছেন নরসিংদী প্রেসক্লাব ও নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাট্রি। অনুষ্ঠানের শুরুতে সংবর্ধিত অতিথি নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনকে ফুলেল শুভেচ্ছা, ক্র্যাস্ট ও বই উপহার দিয়ে সংবর্ধনা জ্ঞাপন করেন নরসিংদী প্রেসক্লাব ও চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর নেতৃবৃন্দ। প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসককে মানপত্র প্রদান করেন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো: মাজহারুল পারভেজ মন্টি।

নরসিংদী শিশু একাডেমি মিলনায়তনে এ সংবর্ধনা “শ্রদ্ধাভিনন্দন” প্রদান করা হয়। নরসিংদী প্রেসক্লাবের সভাপতি মাখন দাস ও নরসিংদী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর প্রেসিডেন্ট মো: আলী হোসেন শিশির-এর যৌথ সভাপতিত্বে সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নরসিংদী ড্রিম হলিডে পার্কের সত্ত্বাধিকারী ও বিশিষ্ট শিল্পপতি প্রবীর কুমার সাহা সিআইপি, রমণী গ্রুপের সত্ত্বাধিকারী বিশিষ্ট শিল্পপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন ভূইয়া লিটন সিআইপি, চেম্বার অব কমার্সের ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ্ব জাকির হোসেন সিআইপি, নরসিংদী প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সভাপতি নিবারণ রায় ও প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহ সভাপতি একে ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাজহারুল পারভেজ মন্টি, সহ-সাধারণ সম্পাদক হামিদুল হক আহাদ, নরসিংদী চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক আনিসুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সংবর্ধিত প্রধান অতিথি নরসিংদীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন নরসিংদীতে দীর্ঘ সময়কাল তাঁর দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনে তাকে সহযোগিতা করায় নরসিংদীবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তাঁর সকল কৃতিত্ব নরসিংদীবাসীর বলে উল্লেখ করেন তিনি।

নরসিংদীতে জেলা প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দিয়ে পাঠানোর জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন প্রধান অতিথি বলেন- আমি এ জেলায় নিজ উদ্যোগে আসি নাই। আমার কর্মগুণেই এখানে প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ দিয়ে পাঠিয়েছেন। শুধু এখানেই নয় যেখানেই পদায়িত হয়েছি সেখানেই আমার কর্মগুণে হয়েছি। অন্যান্যদের সাথে এখানেই আমার ভিন্নতা বা পার্থক্য। এ আদর্শ আমি পারিবারিকভাবেই আমার বাবার কাছ থেকে গ্রহণ করেছি।

প্রেসক্লাবের সভাপতি মাখন দাস প্রধান অতিথির উদ্দেশ্যে বলেন, ২৩ বছরের সাংবাদিকতায় আপনার মতো প্রিয় জেলা প্রশাসক আমি পাইনি। আপনি একজন আলোকিত মানুষ। আপনি সারা জীবনের জন্যে আমাদের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন,আমাদের মাথাগুজার ঠাঁই করে দিয়েছেন আপনাকে আমরা ভুলবো না। পরে ক্লাবের পক্ষ থেকে সভাপতি মাখন দাস জেলা প্রশাসককে ক্রেস্ট এবং মূল্যবান বই উপহার দেন।

ক্যাটাগরি: শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ:

Leave a Reply