রবিবার বিকাল ৩:০৭, ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং

পেঁয়াজের ঝাঁঝ কমলেও সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে টমেটো ও শিম

চমকে দিচ্ছে শীতের আগাম সবজির দর। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কয়েকটি পণ্যের দর বেড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ। সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে টমেটো ও শিম। যদিও খুচরা ব্যবসায়ীদের দাবি, দেশের অন্য অনেক পণ্যের তুলনায় সবজির দর কম। এই অবস্থায় হিমশিম খাচ্ছে ক্রেতারা। তবে স্বস্তির আভাস দিচ্ছে পেঁয়াজ। দুই দিনের ব্যবধানে পাইকারিতে এই পণ্যটির দাম কমেছে কেজিতে প্রায় ১০ টাকা।

শীত চলে এসেছে প্রায়, টমেটো এখন আর দুষ্প্রাপ্য না। কৃষি প্রযুক্তির কল্যাণে এই পণ্যের দেখা মেলে সারাবছর। আমদানি হয় প্রতিবেশি ভারত থেকেও। কিন্তু শীতের আগাম মৌসুম এলেই টমেটোর দাম আকাশ ছোঁয়। এবারও ঘটেছে তাই।

দামের এমন তেজীভাব অনেক সবজিকে ঘিরে। দেড়শ টাকা ছুইঁছুই শিমের দর। ফুলকপি, বাধাকপির পিস ৫০ টাকা। ১৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে কাঁচামরিচ। ৮০ টাকার আশপাশে ঘোরাফেরা করছে ঢেঁড়স, বেগুন ও ঝিঙ্গার দর। তবে সাধারণ মানুষের দাবি শীতের সবজি বাজারে চলে আসা সত্ত্বেও এমন দাম অযৌক্তিক।

অন্যদিকে সরবরাহ বাড়ায় কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকা কমেছে দেশি জাতের পেঁয়াজের দর। পাইকারিতে ৬৫ টাকা কেজি দরে বিকোচ্ছে ভারতীয় পেঁয়াজ। পূজা শেষ হলে আগের দরেই পেঁয়াজ কেনা যাবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

আশার খবর হলো, চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে মুড়িকাঁটা পেয়াজের আবাদ। এটি বাজারে আসতে সময় লাগবে আরও ২ মাস। তখন পেঁয়াজের দাম আরও কমতে পারে।

ক্যাটাগরি: শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ:

Leave a Reply