বৃহস্পতিবার সকাল ৬:২৬, ১৪ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ. ২৭শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

এটা আগস্ট, ফেব্রুয়ারি নয়

“এই লড়ে কে? লড়ে কে?”

বাচ্চাটা মাঝে মাঝে আঞ্চলিক উচ্চারণে কথা বলে। অশুদ্ধ ধরনের কথ্য শব্দ ব্যবহার করে। অবাক হই। ওর মায়ের মুখে, আমাদের ঘরে এমন তো শুনেনি কখনো। মামা-খালাদের মুখেও না। ব্যাপারটা কী? কোথায় পায় ও এসব?

বাচ্চার মা’র সাথে কথা বললাম। ও স্কুলে যাওয়া-আসা শুরুর পরই এসব শুরু করেছে। সম্ভবত ও যে বাচ্চাটার পাশে বসে, তার থেকে। স্যারের মাধ্যমে আসন পাল্টে দিলাম। কারণ বললাম না।

মাসখানিক পর। আরো বাজে অবস্থা। বাচ্চাকে জিজ্ঞেস করি, আম্মু এ শব্দটা কোথায় শুনেছ? অমুক ম্যাডাম ক্লাশে বলেছেন। কী করি? প্রধান শিক্ষকের সাথে কথা বলার সিদ্ধান্ত নিলাম। ব্যাপারটা-প্রয়োজনটা তাকে খুলে বলব। যেন শিক্ষকদের সতর্ক করেন। প্রয়োজনে খণ্ডকালীন প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন।

প্রধান শিক্ষক নিজেই শরীরচর্চা করান। বাচ্চাকে সারিমতো দাঁড় করিয়ে পাশেই দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছি। অন্যদিন চলে আসি। আমি নিজেও শিক্ষক। মাদরাসায় যাওয়ার তাড়া থাকে। শরীরচর্চা শেষে কথা বলব। যথারীতি প্রধান শিক্ষক আসলেন। বাচ্চারা “নড়াচড়া” করছিল। “মহাশয় আসিয়া প্রথমেই চেঁচাইয়া উঠিলেন। কহিলেন, এই লড়ে কে? লড়ে কে?” ছোট বেলায় শুনা একটি ফার্সি কবিতার চরণ মনে পড়ল। “সারা শহরে শত্রু বিধায় বাগানে আশ্রয় নিলাম/ এখন দেখি মালি স্বয়ং দাঁড়িয়ে আছে দা হাতে।”

ফেব্রুয়ারি-নির্ভর ভাষাপ্রেমী জাতি আমরা। কখনো মনে চায়, যদি ভাষার মাসটা বর্ষপঞ্জি থেকে মুছে দিতে পারতাম! এ শুধু অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত আমার এলাকার একটা প্রাইভেট স্কুলের চিত্রই নয়। সারা দেশে, সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় একই অবস্থা। ২০১৫-১৯৫২= ৬৩ বছর। কবে আমরা জাগব? কবে আমরা সত্যিকার ভাষাপ্রেমী হব?

হানিফ আল হাদী : ভাষা-প্রশিক্ষক, প্রাবন্ধিক

ক্যাটাগরি: ভাষা,  মিনি কলাম,  সাহিত্য

ট্যাগ:

Leave a Reply