শনিবার রাত ২:২৯, ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ. ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
Advertisement
সর্বশেষ খবর:
শেষ হল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাষা সাহিত্য সাংবাদিকতা কোর্স মুফতি মুবারকুল্লাহকে আদ-দাঈর `লেখক সম্মাননা স্মারক` প্রদান মহামন্দার শঙ্কায় বিশ্বঅর্থনী‌তি: অচলায়ত‌নে বাংলা‌দেশ মুহুরীনির্ভর আদালত ন‍্যায়বিচারের প্রতিবন্ধক আমি কেন অনলাইনে শিক্ষা ও জ্ঞান বিতরণের বিরোধী: জাকির মাহদিন ‌তিতাস ট্রেনের দুর্নী‌তি-অব্যবস্থাপনা চর‌মে: যাত্রীভোগা‌ন্তি সীমাহীন বিএমএসএফ`র উ‌দ্যোগে ঢাকায় `জার্নালিস্ট শেল্টার হোম`: সব সাংবাদিকের জন্য উন্মুক্ত মুখের ভাষা বাংলা, অস্তিত্বের ভাষা নয়: জাকির মাহদিন ভারত‌কে ব‌লে‌ছি শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার সবই করুন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী অপ‌টিমাম আই‌টি‌ ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়ায় শুরু হচ্ছে ফ্রিল্যা‌ন্সিং মাস্টার কোর্স শুক্রবার ঢাকায় আদ-দাঈর কো‌র্সে জা‌কির মাহ‌দি‌নের ক্লাস: সবার জন্য উন্মুক্ত কেন্দুয়া-নেত্রকোনা আ’লীগ নেতাকর্মী‌দের দ‌লে দ‌লে বিএনপিতে যোগদান

ঠাকুরগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত এলএমজি ও আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার

মো. জাহিরুল ইসলাম

ঠাকুরগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত ২৪টি নট এি ও ৩টি এলএমজি মোট ২৭টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা শহরের আশ্রমপাড়ায় একটি নির্মানাধীন ভবন থেকে মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত ২৭ টি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেছে জেলা পুলিশ। মঙ্গরবার দুপুরে মুক্তিযুদ্ধের সময়ে ব্যবহৃত এ ২৭ টি অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের ২৪ টি হলো ত্রি-নট-ত্রি ও ৩টি এল এম জি বলে নিশ্চিত করেছে জেলা পুলিশ। সাথে ১বক্স গুলিও ব্যবহার সরমজাম উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মুক্তিযুদ্ধের সময়ের আর্মির ব্রিগ্রেডিয়ার নাজির হাওলাদার নামে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ছিল এটা। সম্প্রতি মুক্তিযোদ্ধার নাতি বাপ্পি হাওলাদার জায়গাসহ বাড়িটি বিক্রি করে দেয়। বাড়িটি হানিফ নামক ব্যক্তি ক্রয় করে এবং পুরাতন ভবন ভেঙ্গে নতুন ভবন বানানোর উদ্দেশ্যে শ্রমিক দিয়ে খনন কাজ করান। ভবন ভেঙ্গে মাটি খননের সময় একটি ট্রাংকে থাকা ২৭ টি অগ্নেয়াস্ত্র ও একটি লোহার বক্সে থাকা বিপুল পরিমাণে গুলি দেখতে পায় শ্রমিকরা।

এ বিষয়ে বাড়ির মালিক হানিফ জানান, আমি নতুন বাসা করার জন্যে শ্রমীক কাজে লাগিয়েছি। তারা এগুলো পেয়ে স্থানিয় কয় এক জন থানায় জানান।কিছুক্ষণ পরে পুলিশ এসে অস্ত্রগুলি উদ্ধার করে। স্থানীয়রা জানান, আশেপাশের ভাষাগুলো খনন করলে এমন অনেক অস্ত্র পাওয়া যাবে বলে তারা ধারণা করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, উদ্ধারকৃত অগ্নেয়াস্র গুলো পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়েছে। এই স্থানে আরও অগ্নেয়াস্ত্র আছে কিনা তা দেখা হচ্ছে। পুলিশি তত্বাবধনে খনন কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

মো. জাহিরুল ইসলাম 

ঠাকুরগাঁও থেকে

 

ক্যাটাগরি: বিশেষ প্রতিবেদন,  শীর্ষ তিন,  সারাদেশ

ট্যাগ:

Leave a Reply