সোমবার বিকাল ৫:১২, ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ. ৩রা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
Advertisement
সর্বশেষ খবর:
মুহুরীনির্ভর আদালত ন‍্যায়বিচারের প্রতিবন্ধক আমি কেন অনলাইনে শিক্ষা ও জ্ঞান বিতরণের বিরোধী: জাকির মাহদিন ‌তিতাস ট্রেনের দুর্নী‌তি-অব্যবস্থাপনা চর‌মে: যাত্রীভোগা‌ন্তি সীমাহীন বিএমএসএফ`র উ‌দ্যোগে ঢাকায় `জার্নালিস্ট শেল্টার হোম`: সব সাংবাদিকের জন্য উন্মুক্ত মুখের ভাষা বাংলা, অস্তিত্বের ভাষা নয়: জাকির মাহদিন ভারত‌কে ব‌লে‌ছি শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার সবই করুন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী অপ‌টিমাম আই‌টি‌ ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়ায় শুরু হচ্ছে ফ্রিল্যা‌ন্সিং মাস্টার কোর্স শুক্রবার ঢাকায় আদ-দাঈর কো‌র্সে জা‌কির মাহ‌দি‌নের ক্লাস: সবার জন্য উন্মুক্ত কেন্দুয়া-নেত্রকোনা আ’লীগ নেতাকর্মী‌দের দ‌লে দ‌লে বিএনপিতে যোগদান এক স্ত্রী‌তে পুরু‌ষ ও সমা‌জের যেসব সমস্যা দেখা দি‌তে পা‌রে ছাত্রকে বিয়ে করে ভাইরাল ক‌লেজ শি‌ক্ষিকার লাশ উদ্ধার অমানুষের তালিকায় কেন উচ্চ শিক্ষিতরাই বেশি

শিমরাইলকান্দি হাজীবাড়ি রোডে ‘মানবতার ছোঁয়া’ উদ্বোধন

দেশ দর্শন প্রতিবেদক

“অপচয় না করে যদি নিজেদের পুরনো কাপড়গুলো কষ্ট করে ধুয়ে ও ইস্ত্রি করে এখানে রেখে যান, তাহলে অনেকেই অতিসহজে ও বিনামূল্যে এখান থেকে প্রয়োজনীয় পোশাকের চাহিদাটা পূরণ করতে পারেন।”

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত ও বিখ্যাত তিতাস নদী সংলগ্ন অনন্য গ্রাম- ‘শিমরাইলকান্দি’র হাজীবাড়ি রোডে (মানব গলি) অত্যন্ত ছোট্ট পরিসরে আজ মঙ্গলবার উদ্বোধন হয়েছে মানবতার ছোঁয়া নামক একটি কার্যক্রম। যেখানে বিভিন্ন ব্যক্তি ও পরিবারের পুরনো অব্যবহৃত ও ভালো পোশাকগুলো নির্দিষ্ট জায়গায় দিয়ে যাবে এবং যাদের প্রয়োজন তারা বিনামূল্যে সেখান থেকে নিয়ে যাবে।

দীর্ঘদিনের পরিকল্পনামতো শিমরাইলকান্দিতে এটি শুরু করেন তরুণ সাংবাদিক, কলামিস্ট ও দেশ দর্শন সম্পাদক জাকির মাহদিন। এ সম্পর্কে তিনি বলেন, মানুষের মানসিক পরিশুদ্ধি এবং শিক্ষাগত, চিন্তাগত ও জ্ঞানগত উন্নয়ন কার্যক্রমের পাশাপাশি অর্থকষ্টে জড়িত ব্যাপক জনগোষ্ঠীর ভাত-কাপড়ের ব্যবস্থা করাও অপরিহার্য। সে লক্ষ্যেই এমন কার্যক্রম হাতে নেয়া।

তিনি বলেন, লক্ষ করলে দেখা যায়, উচ্চবিত্ত ও মধ্যবিত্ত প্রায় প্রতিটা ঘরেই এমনকি একান্ত ধার্মিক পরিবারটিতেও কাপড়চোপড়ের প্রচুর অপচয় হয়। দামি দামি পোশাক তারা কিছুদিন ব্যবহার করেই ময়লার বালতিতে ফেলে দেন। অথচ অন্যদিকে বাংলাদেশে আজও লক্ষ লক্ষ ব্যক্তি ও পরিবার আছে, যারা টাকা-পয়সার অভাবে নিজেদের ও পরিবারের প্রয়োজনীয় কাপড়চোপড় কিনতে পারেন না। তো অপচয়কারীরা অপচয় না করে যদি নিজেদের পুরনো কাপড়গুলো কষ্ট করে ধুয়ে ও ইস্ত্রি করে এখানে রেখে যান, তাহলে অনেকেই অতিসহজে ও বিনামূল্যে এখান থেকে প্রয়োজনীয় পোশাকের চাহিদাটা পূরণ করতে পারেন। এতে কারো কোনো খরচ হল না, কিন্তু উভয়েরই উপকার হল। দেশ-সমাজেও বৈষম্য কিছুটা কমল।

তিনি আরো বলেন, তিনি তার সামর্থ্য অনুযায়ী এটি করেছেন। কিন্তু তার ইচ্ছে, প্রাথমিকভাবে অন্তত তার গ্রাম শিমরাইলকান্দির হাজীবাড়ি রোডটিকে শিক্ষাগত ও মানবিক বিভিন্ন কার্যক্রম দিয়ে সাজানো। যেন এটা ‘মানব গলি’ হিসেবে খ্যাতি অর্জন করে। এ থেকে আজকের শিক্ষিত যুবসমাজ অন্তত নিজেদের গ্রাম ও পাড়া-মহল্লাকে এসব কাজের মাধ্যমে সাজিয়ে তোলার একটা শিক্ষা পাবে।

তিনি জানান, যে কেউ নিজের গ্রাম ও পাড়া মহল্লায় এমন কার্যক্রম হাতে নিতে চাইলে তিনি সর্বাত্মক সহযোগিতা করবেন। সুতরাং যাদের যে সামর্থ্য আছে, তারা যেন এসব কাজের সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন।

 

ক্যাটাগরি: প্রধান খবর,  বিশেষ প্রতিবেদন,  ব্রাহ্মণবাড়িয়া,  শীর্ষ তিন

ট্যাগ:

Leave a Reply