শুক্রবার রাত ১০:৩৫, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ. ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
Advertisement
সর্বশেষ খবর:
শেষ হল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাষা সাহিত্য সাংবাদিকতা কোর্স মুফতি মুবারকুল্লাহকে আদ-দাঈর `লেখক সম্মাননা স্মারক` প্রদান মহামন্দার শঙ্কায় বিশ্বঅর্থনী‌তি: অচলায়ত‌নে বাংলা‌দেশ মুহুরীনির্ভর আদালত ন‍্যায়বিচারের প্রতিবন্ধক আমি কেন অনলাইনে শিক্ষা ও জ্ঞান বিতরণের বিরোধী: জাকির মাহদিন ‌তিতাস ট্রেনের দুর্নী‌তি-অব্যবস্থাপনা চর‌মে: যাত্রীভোগা‌ন্তি সীমাহীন বিএমএসএফ`র উ‌দ্যোগে ঢাকায় `জার্নালিস্ট শেল্টার হোম`: সব সাংবাদিকের জন্য উন্মুক্ত মুখের ভাষা বাংলা, অস্তিত্বের ভাষা নয়: জাকির মাহদিন ভারত‌কে ব‌লে‌ছি শেখ হাসিনাকে টিকিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার সবই করুন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী অপ‌টিমাম আই‌টি‌ ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়ায় শুরু হচ্ছে ফ্রিল্যা‌ন্সিং মাস্টার কোর্স শুক্রবার ঢাকায় আদ-দাঈর কো‌র্সে জা‌কির মাহ‌দি‌নের ক্লাস: সবার জন্য উন্মুক্ত কেন্দুয়া-নেত্রকোনা আ’লীগ নেতাকর্মী‌দের দ‌লে দ‌লে বিএনপিতে যোগদান

বাবা-মেয়ের রসায়ন

জাকির মাহদিন

বাবার কো‌লে ফা‌রিসা রা‌দিয়া মাহ‌দিন

সন্তা‌নের প্রতি কো‌নো আগ্রহ ছিল না। খরচ যোগা‌নোর সক্ষমতাও নেই। নি‌জেই চল‌তে পা‌রি না। বি‌য়ে ক‌রে তো আ‌রো ঠেকায়। এমতাবস্থায় স্ত্রীর গ‌র্ভে সন্তান, খু‌শি হওয়ার কো‌নো সু‌যোগ নেই। তাই উপ‌রে উপ‌রে হাল্কা আ‌বেগ দেখা‌লেও ভেত‌রে কো‌নো `টান` নেই।

আর মা তেমন সুস্থ নয়, তাই বাচ্চা জী‌বিত জন্ম হওয়াটাও বিশ্বাস‌যোগ‌্য নয়। তবু কিছু বল‌ছি না। বল‌তে গে‌লে একরকম ভাব‌লেশহীন অ‌পেক্ষা।

এরপর সম‌য়ের অ‌নেক আ‌গেই বাচ্চার স্বাভা‌বিক জন্ম, ওজন খুবই কম। ম‌নের ভেত‌রে তেমন কো‌নো টান বা খু‌শি অনুভব ক‌রি না। চি‌নি না, জা‌নি না, সম্পর্ক হয়‌নি। কিন্তু দিন‌ দিন যেন মে‌য়ে বাবা‌কে চায়, বারবার বাবার দিকে হাত বাড়ায়। ওর ক‌চি হাত, ক‌চি পা, ক‌চি মুখ। নরম শরীর। আমা‌কে এত টা‌নে কেন?

এরপর একসময় বাবা-মেয়ের গভীর রসায়ন, পৃ‌থিবীর কো‌নো ভাষায় ব‌্যাখ‌্যা বা ব‌্যক্ত করা সম্ভব নয়। ওর খরচ যোগা‌তে দীর্ঘ ১০ বছ‌রের অবসর ভে‌ঙ্গে আবার কা‌জে ফেরা।

জাকির মাহদিন: সম্পাদক, দেশ দর্শন

zakirmahdin@gmail.com

ক্যাটাগরি: ধর্ম-দর্শন-বিজ্ঞান,  মিনি কলাম,  সম্পাদকের কলাম

ট্যাগ: জাকির মাহদিন

One response to “বাবা-মেয়ের রসায়ন”

  1. ইমতিয়াজ সৌরভ says:

    ভাই ইনশাল্লাহ সময়ের পরিবর্তনে সব ঠিক হয়ে যাবে।

Leave a Reply