বুধবার বিকাল ৩:১৬, ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ. ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সর্বশেষ খবর:
২৮ ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা একাডেমিতে ‘মাতৃভাষা উৎসব’ ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বোর্ড নির্বাচন অনুষ্ঠিত নির্বাচনী পোস্টারে লেমিনেশন ও পলিথিন ব্যবহাররোধে স্মারকলিপি ক্ষমতার স্বপ্নে বিভোর জাতীয় পার্টি: চুন্নু মাতৃভাষা একাডেমিতে কবিতা আড্ডা অনুষ্ঠিত হোমিওপ্যাথিক হেলথ এন্ড মেডিকেল সোসাইটি ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়া সম্মেলন অনু‌ষ্ঠিত ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়ার বিখ্যাত বাইশমৌজা বাজার ও গরুর হাট ব্রাহ্মণবা‌ড়িয়ায় তরুণ আলেমদের ২য় মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত তরুণ আলেমদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ইসলাম তরবা‌রির জো‌রে প্রতি‌ষ্ঠিত হয়‌নি: আলেমদের সঙ্গে মোকতা‌দির চৌধুরী ফাহমিদা প্রজেক্ট আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মোকতাদির চৌধুরী এমপি ফাহমিদা প্রজেক্ট: অব‌হে‌লিত নারী‌দের কর্মসংস্থানে বিনামূল্যে সেলাই প্রশিক্ষণ

ফাহমিদা প্রজেক্ট: অব‌হে‌লিত নারী‌দের কর্মসংস্থানে বিনামূল্যে সেলাই প্রশিক্ষণ

খায়রুল আকরাম খান

“সমাজের প্রায় প্রতিটি উপকারই কোনো-না-কোনোভাবে প্রতিটি ব্যক্তিকে প্রভাবিত করে বা উপকারকারীর নিকট ফিরে আসে। তাই আমাদের সবারই সামাজিক ও মানবিক কাজে আরো গুরুত্ব দেয়া জরুরি।”

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শিমরাইলকান্দিতে শুরু হয়েছে সমাজের অবহেলিত নারীদের কর্মসংস্থানের লক্ষে দুই মাসব্যাপী বিনামূল্যে সেলাই প্রশিক্ষণ। গতকাল শনিবার ১১ ফেব্রুয়ারি এটি অনানুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে। “নারীর শিক্ষা, সচেতনতা, স্বনির্ভরতা” স্লোগানকে ধারণ করে প্রাথমিকভাবে এটি “ফাহমিদা প্রজেক্ট” নামে পরিচালিত হবে। প্রথম পর্বে পরীক্ষামূলকভাবে সর্বোচ্চ ১০ থেকে ১২ জনকে প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হচ্ছে। স্থান: শিমরাইলকান্দি হাজীবাড়ি রোডস্থ মনির হোসেনের গ্যারেজ সংলগ্ন দেশ দর্শন এর অস্থায়ী কার্যালয়।

এর উদ্যোক্তা ও পরিকল্পনাকারী দেশ দর্শন সম্পাদক জাকির মাহদিন জানান, দীর্ঘদিন ধরেই সমাজের অসহায় ও অবহেলিত নারীদের জন্য কিছু করার বাসনা ও পরিকল্পনার তার ছিল। সময়, সুযোগ ও প্রয়োজনীয় অর্থের অভাবে এতদিন হয়ে উঠেনি। এখন সবগুলোরই একটা সমন্বয় করা সম্ভব হয়েছে। প্রাথমিকভাবে এ প্রজেক্ট সফল হলে এটির ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হবে। অর্থাৎ পরবর্তীতে এটি আরো বড় পরিসরে নিয়মিত করা হবে।

তিনি আরো বলেন, “ইচ্ছা, চেষ্টা, ধৈর্য, আন্ত‌রিকতা, আত্ম‌বিশ্বাস থাক‌লে কো‌নো দল বা সংগঠন লা‌গে না। ব‌্যক্তি-উ‌দ্যো‌গেও সমা‌জের জন‌্য অ‌নেক কিছুই করা যায়, সমা‌জের এ‌কেবা‌রে নিম্নস্তর থে‌কেই। এর জন‌্য বি‌শেষ ব‌্যক্তি হওয়া লা‌গে না। আর সমাজের প্রায় প্রতিটি উপকারই কোনো-না-কোনোভাবে প্রতিটি ব্যক্তিকে প্রভাবিত করে বা উপকারকারীর নিকট ফিরে আসে। তাই আমাদের সবারই সামাজিক ও মানবিক কাজে আরো গুরুত্ব দেয়া জরুরি।

প্রতিবেদক: খায়রুল আকরাম খান

ক্যাটাগরি: প্রধান খবর,  বিশেষ প্রতিবেদন,  শীর্ষ তিন

ট্যাগ:

Leave a Reply